ম্যাচ প্রিভিউঃ এল ক্লাসিকো, স্প্যানিশ সুপার কাপ ফাইনাল

প্রস্তুত ন্যু ক্যাম্প! প্রস্তুত বার্সেলোনা, প্রস্তুত রিয়াল মাদ্রিদ,  প্রস্তুত মেসি,  প্রস্তুত রোনালদো।

রোনালদো সিজনের শুরু করার জন্য এখনো মুখিয়ে আছেন।  যদিও রিয়াল আগেই তাদের মৌসুমের শুরু করেছে উয়েফা সুপার মাধ্যমে। আজ তারা ঘরোয়া ফুটবলে যাত্রা শুরু করবেন আর সেটা যদি স্প্যানিশ সুপার কাপ ফাইনাল হয় আর অপনেন্ট যদি চির প্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনা হয় তাহলে তো মন্দ হয় না। অপর দিকে বার্সেলোনা এ ম্যাচের মাধ্যমে তাদের এ সিজনের অফিসিয়াল যাত্রা শুরু করবে।

১৩ অগাস্ট ২০১৭ দিবাগত রাত ২ টায় বার্সেলোনার হোম গ্রাউন্ড ন্যু ক্যাম্পে স্প্যানিশ সুপার কাপের ১ম লেগে পরস্পরের মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন এ দুই স্প্যানিশ জায়ান্টরা।

সম্ভাব্য একাদশ


বার্সেলোনা –  মার্ক আন্দ্রে টার স্টেগান, স্যামুয়েল উমতিতি, জেরার্ড পিকে, জর্দি আলবা, এলেক্স ভিদাল, সার্জিও বুস্কেটস, আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা (অধিনায়ক), ইভান রাকিটিচ, লিওনেল মেসি, লুইস সুয়ারেজ, ডেউলোফেউ।

ফরমেশনঃ ৪-৩-৩

রিজার্ভ : সিয়েসেন, মাশ্চেরানো, নেলসন সেমেডো, সার্জিও স্যাম্পার, সার্জিও রবার্তো, ডেনিস সুয়ারেজ, পাকো আলকাসার।

রিয়াল মাদ্রিদ- কেইলর নাভাস, সার্জিও রামোস(ক্যাপ্টেন), রাফায়েল ভারানে, মার্সেলো(ভাইস ক্যাপ্টেন), ডানিয়েল কার্ভাহাল, ক্যাসিমিরো, টনি ক্রুস, ইস্কো, গ্যারেথ বেল, করিম বেঞ্জেমা, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো

ফরমেশনঃ  ৪-৩-৩

 রিজার্ভ: কিকো ক্যাসিয়া, নাচো, থিয়ো হার্নান্দেজ, কোভাচিচ, ডানি সেবালস, লুকাস ভাস্ককেস, মার্কো আসেনসিও

ট্যাক্টিকাল এনালাইসিস


বার্সেলোনাঃ নতুন কোচ এসেছে সাথে নতুন কিছু প্লেয়ারও পেয়েছে তাই আগের কোচ এনরিকের তুলনায় তার খেলার স্টাইল কিছুটা ভিন্ন হবে সেটা তার গত প্রীতি ম্যাচগুলোতেই দেখা গিয়েছে। যদিও কোচ ভালভার্দে পাচ্ছেন না কোন জেনুইন হোল্ডিং মিডফিল্ডার আর একজন ওয়ার্ল্ড ক্লাস উইংগার, কারণ কিছুদিন আগে বার্সা থেকে পিএসজি তে পাড়ি জমানো নেইমারের রিপ্লেসমেন্ট এখনো খুজে পাইনি বার্সেলোনা, তাই লেফট উইং দিয়ে স্টার্টিংটা সদ্য এভারটন থেকে কিনে নিয়ে আসা নিজেরদেরই লা মাসিয়া প্রোডাক্ট ডেউলোফেউ দিয়ে করাবেন কোচ।

ভালভার্দের আরেকটি সুবিধা হচ্ছে ম্যাচটি নিজের হোমগ্রাউন্ড ন্যু ক্যাম্পে এবং দলে নেই কোন ইঞ্জুরি সমস্যা। ম্যাচ যেহেতু ন্যু ক্যাম্পে সেহেতু বার্সা এটাকিং খেলতে চাইবে কেননা পরের লেগেই হবে রাইভালের হোমগ্রাউন্ড সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে। তাই বার্সা চিরচেনা মিড ডমিনেশনের সাথে আক্রমণও বেশি করতে চাইবেন যেন ১ম লেগেই ম্যাচ শেষ করে দেয় যায় (যদিও রিয়ালের টিমকে হারানোই এখন দুঃসাধ্য ব্যাপার)। মেসিকে পুরো ফ্রি ডমে রেখে এটাক সাজানো হবে তার রাইট উইং সাইড ম্যাক্সিমাম সময় ফাকা থাকবে তাই এ জায়গাটাতে রাকিটিচ আর ভিদালকে সলিড পারফর্ম করতে হবে।

রিয়াল মাদ্রিদঃ উড়তে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের এবারের মিশন কয়েক বছর ধরে অধরা থাকা স্প্যানিশ সুপার কাপ জয়।  কিন্তু এর সামনে বাধা হয়ে দাড়িয়েছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাব বার্সেলোনা এর পরে আবার মদ্রিচের সাসপেনশন মরার উপর খাড়ার ঘা হয়ে দাঁড়িয়েছে। যদিও রিয়াল মাদ্রিদে তার ব্যাকআপ রয়েছে। রিয়ালের আরেকটি স্বস্তির বিষয় হল ছুটি কাটিয়ে দলে ফিরেছেন পর্তুগিজ সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। জিদান জানেন ম্যাচটি ন্যু ক্যাম্পে তাই তিনি হয়তো তার চিরচেনা এটাকে যাবেন না। সে ক্যাসিমেরিওকে দিয়ে মেসিকে মার্কিং ও ফিজিক্যালি এটাচ রাখবে এবং সম্পুর্ণ ডিফেন্স গুছিয়ে তারপর এটাকে যাবে।

হয়তবা আপনারা ২০১৬ সালে ন্যু ক্যাম্পে হওয়া দুইটি এল ক্লাসিকোয় দেখেছেন সে কতটুকু ডিফেন্সিভ খেলে এবং সেটা কাজ করেছে ফলাফল জিদানের ন্যু ক্যাম্পে ১ জয় এবং ১ ড্র। জিদান জানে পরের ম্যাচ নিজেরদের মাঠে, তাই সেই চাইবে ম্যাচটি জিতুক নুন্যতম ব্যবধানে ড্র করুক কিংবা নুন্যতম ব্যবধানে যেন হারে। আর এওয়েতে যদি গোলের একটা এন্ডভান্টেজ নিতে পারে তাহলে তো শিরোপা জিতাটা আরো সহজ হয়ে যায়।

পরিসংখ্যান


যদিও এল ক্লাসিকোতে কোন পরিসংখ্যান মানে না তবুও হেড টু হেড পরিসংখ্যান টা দেয় ম্যাচ:২৩৩টি ম্যাচে রিয়ালের জয় ৯৩টি, বার্সার জয় ৯১টি এবং ড্র ৪৯টি

ব্যবধানে রিয়াল কিছুটা এগিয়ে থাকলেও লাস্ট প্রীতি ম্যাচও বার্নাব্যুতে হওয়া ম্যাচ কথা বলছে বার্সার পক্ষে।

পরিশেষে বলতে চাই এই মহারণে যেই জিতুক না কেন বরাবরই মতই এবারো একটি ক্লাসিকাল ম্যাচের আসায় থাকবে গোটা বিশ্ব।

ম্যাচটি বাংলাদেশ সময় রাত ২ টায় শুরু হবে, সরাসরি দেখতে পারবেন সনি সিক্স, টেন টু , সনি লিভ চ্যানেলে।

সরাসরি দেখতেঃ সনি সিক্স

টেন ২